‘বিশ্বকাপে বাংলাদেশ কোনো ম্যাচ জিতবে বলে মনে করি না আমি’—দেশে থাকতেই এ কথা বলে তুমুল বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার তানভীর মাজহার তান্না। অথচ অধিনায়ক তাঁর উল্টো পথে হেঁটে দিয়েছিলেন সাহসী ঘোষণা, ‘আমরা বিশ্বকাপে দুটি ম্যাচ জিততে চাই।’

কাল সংবাদ সম্মেলনে আনন্দে ঝলমল করতে থাকা আমিনুল ইসলাম বুলবুল মনে করিয়ে দিলেন সেটাই, ‘আমি এখানে এসেও একটা ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বলেছিলাম বিশ্বকাপে দুটো ম্যাচ জিতব। জিতেছিও।’ সম্ভাব্য একটি জয়ের প্রতিপক্ষ সম্পর্কে জানা ছিল সবারই। অন্যটি যে পাকিস্তান হবে, তা কি কল্পনা করেছিলেন বুলবুল?

প্রতিপক্ষ পাকিস্তান বলেই এই জয়ের আনন্দটা আরও বেশি। ‘পাকিস্তান দারুণ দল, বিশেষ করে এই টুর্নামেন্টে দারুণ খেলছিল ওরা। তাই ওদেরকে হারানোর আনন্দটাই আলাদা’—এ কথা বলার পর বুলবুল আলাদা করে নাম করলেন বিদ্যুৎ, আকরাম ও সুজনের, ‘এরা সত্যিই খুব ভালো করেছে।’ ২২৩ রান করার পর লাঞ্চের সময় বুলবুল কি কল্পনা করেছিলেন, দিনের শেষটা হতে যাচ্ছে এমন? ‘আমি জানতাম শুরুতে ২/৩টি উইকেট পেয়ে গেলে ভালো ফাইটই দিতে পারব। তা যখন হলো, তখন থেকেই জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলাম।’

রান আউটে কাটা পড়তে যাচ্ছেন সাঈদ আনোয়ার। ছবি: এএফপি

কালকের ম্যাচে বাংলাদেশের একাদশ দেখে ভ্রু কুঁচকে গিয়েছিল অনেকেরই। মাত্র দুজন স্পেশালিস্ট বোলার নিয়ে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। ফিল্ডিং করতে নামার সময় বুলবুলের তাই শান্ত বা মঞ্জুর অভাব বোধ করারই কথা। সুজন আর সফিউদ্দিন বাবু অবশ্য বেশিক্ষণ তা অনুভব করতে দেননি তাঁকে। দুই উদ্বোধনী বোলারের প্রশংসা ঝরল তাঁর মুখে, ‘ওরা দুজনই দারুণ লাইন-লেংথে বল করেছে। তবে ফিল্ডিং করতে নামার সময় আমি জানতাম, এই দুজন ছাড়াও আরও দুজন স্পিনার (রফিক ও দুর্জয়) আছে আমার দলে। তাছাড়া আজ আমাদের ফিল্ডিংও হয়েছে দারুণ।’

গত বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে যে বিস্ময় জাগিয়েছিল কেনিয়া, এবার তাদের পারফরম্যান্সে সেটি ‘বিস্ময়’ই হয়ে আছে এখনও। বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও কি তাই হবে—এক বিদেশি সাংবাদিকের এই প্রশ্নের চমৎকার উত্তর দিলেন বুলবুল, ‘কেনিয়া আর আমাদের কথা আলাদা। আমাদের দেশে ক্রিকেট কালচারটা অন্য রকম। আমার মনে হয় এই জয় আমাদের দেশের পুরো ক্রিকেট কাঠামোকেই বদলে দেবে। টেস্ট স্ট্যাটাসের যে আবেদন করেছি আমরা, এই জয়ে সে পথেও এগিয়ে গেলাম অনেকটা।’

বাংলাদেশের এই কৃতিত্বকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়েও একটু এগিয়ে রাখলেন রাখলেন বুলবুল, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোর চেয়ে পাকিস্তানকে হারানোটা বেশি কৃতিত্বের বলে মনে করি আমি।’

আরও পড়ুন:

আকরাম-বিদ্যুৎ-সুজন গড়েছিলেন জেতার স্কোর