তামিম ইকবাল আর স্ট্রাইক রেট, বলতে গেলে শব্দগুলো পরস্পরের সমার্থকই হয়ে গেছে বিগত কয়েক বছরে। গত সপ্তাহেই যেমন, শুভ্র.আলাপে অতিথি হয়ে এসে এ প্রসঙ্গে মুখ খুলতে হয়েছিল ক্রিকেট কোচ নাজমূল আবেদীন ফাহিমকে। ক্যারিয়ারের শুরুতে তামিম যে ধরনের ব্যাটিং করতেন, যে দর্শনে ব্যাট করতেন, সেখান থেকে তামিম গত কিছুদিন অনেক সরে এসেছেন বলেই মত ছিল তাঁর। সেই তামিমকে যে মিস করেন খুব, জানিয়েছিলেন এমন কথাও।

শুধু ফাহিমই নন, প্রায় একই ধরনের মন্তব্য মিলছিল আরও অনেক বিদগ্ধজনের কাছ থেকেই। গতকাল নাফিস ইকবালকে অতিথি হিসেবে পেয়ে উৎপল শুভ্র তাই হাতছাড়া করেননি এই প্রশ্নটি জিজ্ঞাসা করার সুযোগ, তামিমের ব্যাটিং সম্পর্কে নাফিসের মূল্যায়নটাও কী একই ধারাতেই বইছে? প্রত্যুত্তরটা বেশ লম্বাই মিলল নাফিসের কাছ থেকে। ডাউন দ্য উইকেট গিয়ে মারলে বেশি মনে থাকে, উৎপল শুভ্রর এই কথার সূত্র ধরে শুরুতেই বললেন, 'ব্যাপারটা হলো, ডাউন দ্য ট্র‍্যাকে এসে যদি মারেন, যেগুলোতে আওয়াজ বেশি হয়, বাংলাদেশের মানুষেরা সেখানে হাততালি বেশি দেয়। একটা ক্ল্যাসিকাল কাভার ড্রাইভ, যেটাতে আওয়াজ নাই, কিন্তু রেজাল্ট একই, সেগুলোকে মনে করে নরমাল একটা শট।'  

দলে তামিমের বদলে যাওয়া ভূমিকা বদলে যাওয়ার কথাটাও মনে করিয়ে দিলেন নাফিস, 'আগে দলে সুমন ভাই ছিল, শাহরিয়ার নাফীস ছিল; দলে কিন্তু অনেক সিনিয়র প্লেয়ার ছিল। যখন থেকে তামিমরা একটু সিনিয়রের কাতারে গেছে, তখন থেকে ওদের ওপরে কিন্তু রেসপন্সিবিলিটি চলে আসছে। আপনাকে মানতেই হবে, তামিম-সাকিব-মুশফিক এই তিনজন মিলে যে-ই ম্যাচে খেলে, সেই ম্যাচে বাংলাদেশের জেতার চান্স কিন্তু অনেক বেশি থাকে। এমনকি জেতেও। এই রেসপন্সিবিলিটিটা যখন আপনার ঘাড়ে আসবে, তখনই আপনি বুঝতে পারবেন, কী পরিমাণ প্রেশার নিয়ে আপনাকে খেলতে হচ্ছে। ইটস নট দ্যাট, ও (মেরে খেলতে) পারে না। এর মানে হচ্ছে, ও দলকে জেতাতে চায়। এই রেসপন্সিবিলিটিটা নিলে অনেক ফ্ল্যাশি শট খেলাই কিন্তু কমাতে হয়।'

যদিও এই শট কমানোর কারণে তামিমের স্ট্রাইক রেট কমেনি বলেই তাঁর দাবি। এখন হয়তো বা আর আগের মতো ডাউন দ্য উইকেটে গিয়ে ছয় হাঁকাচ্ছেন না, তবে কাভারের ওপর দিয়ে বল তুলে ঠিক ছয় রানই এনে দিচ্ছেন তামিম। ২০০৭ বিশ্বকাপে জহির খানের বলে ডাউন দ্য ট্র‍্যাকে গিয়ে মারা তামিমের সেই ছক্কা এখনো চোখে ভাসে উৎপল শুভ্রর, কখনো কখনো সেই তামিমকে মিসও করেন। কিন্তু পরিসংখ্যান ঘাঁটাঘাঁটি করতে গিয়ে তিনিও আবিষ্কার করছেন, ২০০৭-১৫ সময়কালের চেয়ে তামিমের বরং স্ট্রাইক রেট বেড়েছে পরবর্তী ছয় বছরে।

নাফিস ইকবাল তাই যখন বলেন, তামিমের খেলার 'রেজাল্ট একই আছে, শুধু ধরন আর চিন্তা-ভাবনাটা বদলেছে', এই কথার সঙ্গে একমত না হয়ে আর উপায় থাকে না। তা জনমনে তামিমের স্ট্রাইক রেট যতই আলোচনার বিষয় হোক না কেন!